সারাদেশ

চা বিক্রেতা সৌরভের পড়ালেখার দায়িত্ব নিলেন প্রতিমন্ত্রী পলক

রাজু আহমেদ, নাটোরঃ সিংড়ায় চা বিক্রেতা সৌরভ এবার এসএসসিতে জিপিও ৫+ পাওয়ার বিষয়টি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের নজরে আসলে প্রতিমন্ত্রী শনিবার ঐ চা বিক্রেতা সৌরভ ও তার বাবা শ্যামল ও মায়ের সাথে নিজ বাসভবনে দেখা করে সৌরভের পড়ালেখার সকল দায়িত্ব নেন। এসময় প্রতিমন্ত্রী সৌরভকে আইসিটি বিভাগের পক্ষ থেকে ১ টি ল্যাপটপ উপহার প্রদান করেন এবং তার বাবার চিকিৎসার খরচ দেন।

নাটোরের সিংড়া উপজেলার পৌরসভা ৪নং ওর্য়াড মাদারীপুর এলাকায় শ্যামল কুমার শীল এর ছেলে সৌরভ কুমার এ বছর সিংড়া দমদমা পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের (ভোকঃ) শাখা থেকে চা বিক্রয় করে গোল্ডেন এ+ প্লাস পেয়েছে। করোনা কালীন সময়ে থেকে তার বাবা অসুস্থ হয়ে পড়ায় পড়াশোনার পাশাপাশি তার বাবা কর্ম করতে না পারায় চা বিক্রয়ের পেশা বেছে নেয় সৌরভ। নিতান্তই দরিদ্র পরিবারে অভাব অনটনের মধ্যও নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছে সৌরভ।

সৌরভ কে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে বিশ্বজয়ের অনন্য উপহার ল্যাপটপ প্রদান করেছি। সবাই সৌরভের জন্য দোয়া করবেন সে যেন উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারে।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তার ফেসবুক ওয়ালে পোস্টে বলেন, সৌরভ আমার নির্বাচনী এলাকার সিংড়া পৌর শহরের বাস টার্মিনাল এলাকার (মাদারীপুর গ্রাম) শ্যামল কুমার শীল ও স্বপ্না রানী শীলের ছেলে।
ছোটবেলায় তার পড়াশোনা শুরু অন্যের বই-খাতা ধার করে। বাবা শ্যামল কুমার শীল রাস্তায় ঘুরে ঘুরে চা বিক্রি করে সংসার চালাতেন। একসময় তিনি ডায়াবেটিস, কিডনি সমস্যাসহ নানা রোগে আক্রান্ত হন। এরপর সংসারের দায়িত্ব নিতে হয় সৌরভকে। তিন বছর ধরে বাবার চায়ের ফ্লাস্ক হাতে নিয়ে সারা দিন রাস্তায় ঘুরে ঘুরে চা বিক্রি করে সে। এই সৌরভ ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষায় পেয়েছে গোল্ডেন এ প্লাস (জিপিএ ৫)।

এই বিভাগের অন্য খবর

Back to top button