জাতীয়প্রধান খবর

আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

তিনদিন ধরে তাবলীগ জামায়াতের নানামুখী শিক্ষা শেষে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন মুসল্লিরা। রোববার (২২ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি মাওলানা সাদ আহমদ কান্ধলভীর ছেলে মাওলানা ইউসুফ কান্ধলভী। এসময় মওলানা সদের মেজো ছেলে মাওলানা সাঈদ কান্ধলভী ও ছোট ছেলে মাওলানা ইলিয়াস কান্ধলভী ময়দানে উপস্থিত ছিলেন। 

আজ দুপুর ১২টা ১৬ মিনিটে শুরু হওয়া মোনাজাত চলে দুপুর দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত। প্রায় ৩০ মিনিট ধরে চলা মোনাজাতে দেশ ও মানুষের কল্যাণ কামনা করেন মুসল্লিরা। এসময় তারা কান্নায় ভেঙে পড়েন।

এদিকে আখেরি মোনাজাত শেষে মুসুল্লিদের বাড়ি ফেরার সুবিধার্থে রেলওয়ে বিভাগের পক্ষ থেকে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সব ট্রেনের যাত্রাবিরতি রাখা হয় টঙ্গি স্টেশনে। 

ভোর থেকে মোনাজাত শেষ হওয়া পর্যন্ত ইজতেমা সংলগ্ন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভোগড়া বাইপাস থেকে আব্দুল্লাপুর এবং ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের আশুলিয়া থেকে কামারপাড়া পর্যন্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রিত রাখা হয়। তবে প্রথম পর্বের মতো যানচলাচল ভোগান্তিতে পড়েনি মুসল্লিরা।

করোনাভাইরাসের কারণে দুই বছর এই জমায়েত বন্ধ থাকার পর এবারও দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হলো বিশ্ব ইজতেমা।

বিশ্ব শান্তি ও মুসলিম উম্মার কল্যাণ কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। এতে অংশ নেন বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা লাখো মুসল্লি।

তিনদিন ধরে তাবলীগ জামায়াতের নানামুখী শিক্ষা শেষে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন মুসল্লিরা। 

রোববার (২২ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি মাওলানা সাদ আহমদ কান্ধলভীর ছেলে মাওলানা ইউসুফ কান্ধলভী। এসময় মওলানা সদের মেজো ছেলে মাওলানা সাঈদ কান্ধলভী ও ছোট ছেলে মাওলানা ইলিয়াস কান্ধলভী ময়দানে উপস্থিত ছিলেন। 

আজ দুপুর ১২টা ১৬ মিনিটে শুরু হওয়া মোনাজাত চলে দুপুর দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত। প্রায় ৩০ মিনিট ধরে চলা মোনাজাতে দেশ ও মানুষের কল্যাণ কামনা করেন মুসল্লিরা। এসময় তারা কান্নায় ভেঙে পড়েন।

এদিকে আখেরি মোনাজাত শেষে মুসুল্লিদের বাড়ি ফেরার সুবিধার্থে রেলওয়ে বিভাগের পক্ষ থেকে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সব ট্রেনের যাত্রাবিরতি রাখা হয় টঙ্গি স্টেশনে। 

ভোর থেকে মোনাজাত শেষ হওয়া পর্যন্ত ইজতেমা সংলগ্ন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভোগড়া বাইপাস থেকে আব্দুল্লাপুর এবং ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের আশুলিয়া থেকে কামারপাড়া পর্যন্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রিত রাখা হয়। তবে প্রথম পর্বের মতো যানচলাচল ভোগান্তিতে পড়েনি মুসল্লিরা।

প্রতিবছর টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে আয়োজন করা হয়ে থাকে তাবলীগ জামায়াতের শীর্ষ সম্মেলন বিশ্ব ইজতেমা। যেখানে দেশ-বিদেশের লাখো মুসলিম যোগ দেন। ২০১৮ সালের বিরোধের পর বাংলাদেশের মাওলানা জুবায়ের ও দিল্লির মৌলভি সাদ কান্ধলভির দুই পক্ষ ২০১৯ ও ২০২০ সালে আলাদা ইজতেমা করে। করোনাভাইরাসের কারণে দুই বছর এই জমায়েত বন্ধ থাকার পর এবারও দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হলো বিশ্ব ইজতেমা।

এই বিভাগের অন্য খবর

এছাড়াও দেখুন
Close
Back to top button